৭৫% রাশিয়ান মনে করেন তাদের দেশের ইতিহাসের সেরা সময় ছিল ‘সোভিয়েত যুগ’

Spread the love

স্টাফ রিপোর্টার” শেখ জুয়েল রানা’

মস্কো (রাশিয়া), ৩১ মার্চ ২০২০ : প্রতি চারজন রাশিয়ানের মধ্যে তিনজন রাশিয়ান, অর্থাৎ প্রায় ৭৫ শতাংশ রাশিয়ান মনে করেন যে, সমাজতান্ত্রিক ব্যবস্থা ‘সোভিয়েত যুগ’ তাঁদের দেশের ইতিহাসের সবথেকে সেরা সময় ছিল। গত সপ্তাহে স্বাধীন লেভাদা সেন্টার পোলস্টার প্রকাশিত এক সমীক্ষায় এই দাবি করা হয়েছে।
সোভিয়েত ইউনিয়ন ও পূর্ব ইউরোপের পারস্পরিক লড়াইয়ের ত্রিশ ‌বছর পর এবং বুর্জোয়া শ্রেণীর ক্রমাগত কমিউনিস্ট-বিরোধী, সোভিয়েত বিরোধী প্রচার সত্ত্বেও, রাশিয়ানরা এখনও ইউএসএসআর এবং জোসেফ স্টালিন সম্পর্কে নিজেদের ইতিবাচক মতামত প্রকাশ করেন।

সমীক্ষাতে দেখা গেছে, ‘রাশিয়ার ইতিহাসের সেরা সময় সোভিয়েত ইউনিয়ন’, উত্তরদাতাদের মধ্যে মাত্র ১৮ শতাংশ লোক এই ধারনার সাথে সহমত নন। সমীক্ষায় অংশ নেওয়া প্রায় ৩০ শতাংশ মানুষ ‘সোভিয়েত ইউনিয়ন যে পথ অনুসরণ করেছিলো’ তা ফিরে‌ পাওয়ার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন। মাত্র ১০ শতাংশ লোক জবাব দিয়েছেন যে ইউরোপের দেখানো উন্নয়নের পথই সঠিক পথ।

প্রায় ৩১ শতাংশ রাশিয়ান সোভিয়েত যুগকে ইতিবাচক যুগ হিসেবে মনে করেন। অর্থাৎ এই ৩১ শতাংশ মানুষ মনে করেন এই যুগে দেশের একটা ভালো ভবিষ্যৎ ছিল। এগারো শতাংশ মানুষের শৈশবকাল বা যৌবনের ব‍্যক্তিগত স্মৃতির সাথে USSR জড়িয়ে রয়েছে। সমীক্ষায় অংশ নেওয়া মাত্র ৫ শতাংশ মানুষ সোভিয়েত যুগকে নেতিবাচক যুগ হিসেবে মনে করেন।

গত ২০ থেকে ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ https://www.levada.ru/2020/03/24/struktura-i-vosproizvodstvo-pamyati-o-sovetskom-soyuze/র পক্ষে রাশিয়া জুড়ে এই সমীক্ষা চালানো হয়। দেশের শহর ও গ্রামাঞ্চলের ১৩৭টি জনবহুল অঞ্চলে ১৮ বছর বা তার বেশি বয়েসী নাগরিকদের কাছ থেকে মতামত নেওয়া হয়। এই সমীক্ষায় মোট ১৬১৪ জনের কাছ থেকে মতামত নেওয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছে ওই সংস্থাটি।

‘প্রতি চারজন রাশিয়ানের মধ্যে তিনজন রাশিয়ান, অর্থাৎ প্রায় ৭৫ শতাংশ রাশিয়ান মনে করেন যে, সোভিয়েত যুগ তাঁদের দেশের ইতিহাসের সবথেকে সেরা সময় ছিল’ বলে গত সপ্তাহে স্বাধীন লেভাদা সেন্টার পোলস্টার প্রকাশিত সমীক্ষাটিকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির মৌলভীবাজার জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য, অারপি নিউজের সম্পাদক ও বিশিষ্ট কলামিস্ট সৈয়দ অামিরুজ্জামান।
এই সমীক্ষা নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে সৈয়দ অামিরুজ্জামান অারও বলেন, “সমাজতন্ত্রের সেই সুখময় দিনগুলি ফিরে আসার স্বপ্ন দেখেন রাশিয়া এবং পূর্বতন সোভিয়েতের সবকটি অঙ্গরাষ্ট্রের কোটি কোটি মানুষ৷ তাঁদের রাশিয়া এখন সাম্রাজ্যবাদী শিবিরের অন্যতম সদস্য৷ মারণাস্ত্রের ঝঙ্কারে সে দেশ পাল্লা দিচ্ছে মার্কিন ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদীদের সাথে প্রায় সমানে সমানেই৷ অথচ একদিন যে শ্রদ্ধা জাতি হিসাবে তাঁরা বিশ্বের মানুষের কাছে পেয়েছেন, আজ তা কোথায় অন্তর্হিত এ কথা তাঁরা মর্মে মর্মে অনুভব করেন৷ তাঁরা দেখেছেন, ফুটবল বিশ্বকাপের কী বিশাল আয়োজন করেছিল তাঁদের দেশ৷ সেখানে জৌলুস–বৈভবের প্রদর্শনী ফেলে সারা বিশ্বের থেকে আগত অতিথিরা দেখতে চেয়েছেন, সেই সমাজতান্ত্রিক সোভিয়েতের স্মৃতিচিহ্ণগুলি৷ এই শ্রদ্ধার আসন পাতা হয়েছিল কোন ভিত্তির উপর? জ্ঞান–বিজ্ঞান–সাহিত্য-সিনেমা থেকে শুরু করে খেলাধূলা তো বটেই, জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে নতুন অবদান রাখছে সমজাতান্ত্রিক সমাজ– এই ছিল সেই শ্রদ্ধার ভিত্তি৷”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *