শ্রীমঙ্গলে ১দিনে আড়াই হাজার মানুষ পেল  প্রধানমন্ত্রীর খাদ্য সহায়তা

Spread the love
শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি:
কোভিড -১৯ করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে পড়েছে দেশের বহু মানুষ। আর এসব কর্মহীন হয়ে পড়া ও নানান কারণে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার গুলোর মাঝে সরকারের পক্ষ থেকে সহায়তা খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থ দেয়া হচ্ছে দেশব্যাপী।
শনিবার ১০ জুলাই সকালে শ্রীমঙ্গল উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ বিভাগের উদ্যোগে পৌরসভা ও উপজেলার বিভিন্ন  এলাকার প্রায় আড়াই হাজার মানুষকে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে খাদ্য সহায়তা ১০ কেজি করে (চাল) দেওয়া হয়েছে।
গিয়ে দেখা যায় করোনা সংক্রমণ রোধে উপজেলা পরিষদ মাঠে ২০ টি বুথ তৈরি করে  তিন ফুট দূরত্ব বজায় রেখে লাইন বেঁধে উপকারভোগীদের মাঝে এসব চাল বিতরণ করা হচ্ছে। প্রতিটি বুথে উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা দায়িত্বে ছিলেন। সামাজিক দূরত্ব এবং শৃঙ্খলা বজায় রাখতে সেনাবাহিনী, পুলিশ ও আনসার সদস্যদের কাজ করতে দেখা গেছে।
খাদ্য সামগ্রী বিতরণে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, অনুমিত হিসাব সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি উপাধ্যক্ষ ড.মো. আব্দুস শহীদ এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান প্রেম সাগর হাজরা, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. নেসার উদ্দিন, শ্রীমঙ্গল থানার পরিদর্শক (অপারেশন) নয়ন কারকুন, সেনাবাহিনীর (ক্যাপ্টেন) সালমান উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ আসাদুজ্জামান, সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ভানু লাল রায় প্রমুখ।
এ সময় আব্দুস শহীদ এমপি বলেন, এই করোনা দুর্যোগে ঘরে খাবার নেই এ কথা যেন কেউ বলতে না পারে সেজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র নির্দেশে উপজেলার প্রতিটি কর্মহীন দরিদ্র মানুষের ঘরে ঘরে আমরা খাবার পৌঁছে দিচ্ছি। তিনি বলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রতিটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, মেম্বারদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে এলাকায় ঘুরে ঘুরে অসহায় মানুষদের তালিকা করে খাদ্য সহায়তা তাদের বাড়িতে পৌঁছে দেয়ার জন্য।
উপজেলা সূত্রে জানা যায়, করোনা ভাইরাসের কারণে সরকার ঘোষিত চলমান লকডাউনে ইতিমধ্যে বিভিন্ন ধাপে উপজেলার  ৯ টি ইউনিয়ন ১টি পৌরসভার ২০ হাজার পরিবারের মাঝে নগদ অর্থ ও খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ঈদুল আযহা’কে সামনে রেখে উপজেলায় আরও প্রায় ১৩ হাজার পরিবারকে সরকারের পক্ষ থেকে খাদ্য সহায়তা দেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *