ভাষা সৈনিক কমরেড আসাদ্দর আলী ছিলেন রাজনীতির শিক্ষক : স্মরণসভায় দিলীপ বড়ুয়া

Spread the love

স্টাফ রিপোর্টার” শেখ জুয়েল রানা,
সিলেট, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০: “ভাষা সৈনিক ও ‘৭১-এর মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও সাম্যবাদী দলের সাবেক সভাপতি কমরেড আসাদ্দর আলী ছিলেন একজন দূরদর্শী রাজনীতিবিদ। তাঁর রাজনীতির প্রজ্ঞা দিয়ে সিলেটে তিনি বঞ্চিত মানুষের অধিকার আদায়ের আন্দোলনে অগ্রনী ভুমিকা পালন করেছিলেন। তাঁর মতো রাজনীতিবিদ এখন পাওয়া সম্ভব না। তিনি শুধু রাজনীতিবিদ ছিলেন না, তিনি ছিলেন একজন রাজনীতির শিক্ষক। তার কাছে বিভিন্ন দলের মতের মানুষেরা বিভিন্ন পরামর্শ নেওয়ার জন্য আসতো। তিনি ছিলেন সর্বদলের মানুষের অত্যন্ত আপন জন।” ভাষা সৈনিক ও কমিউনিস্ট আন্দোলনের অন্যতম পথিকৃত কমরেড আসাদ্দর আলী’র ৩০ তম স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল (এম এল) এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক শিল্পমন্ত্রী কমরেড দিলীপ বড়ুয়া একথাগুলো বলেন।
সভায় বক্তরা বলেন সভায় কমরেড আসাদ্দর আলী নামে সিলেটে কোন প্রতিষ্ঠান নেই। পূর্বে বিভিন্ন সংগঠন তার নামে সিলেটের কাজীর বাজার ব্রীজ নামকরের আহবান জানালেও তা বাস্তবায়ন হয় নি।
বক্তারা বর্তমান সরকারের কাছে কমরেড আসাদ্দর আলী নামে কাজীর বাজার সেতুর নামকরণ করার আহবান জানান।
শনিবার সিলেট মহানগরের কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের হলরুমে আয়োজিত স্মরণ সভায় কেন্দ্রীয় পলিট ব্যুরো সদস্য ও সিলেট জেলার সম্পাদক কমরেড ধীরেন সিংহের সভাপতিত্বে ও সাম্যবাদী দলের কেন্দ্রীয় সদস্য ও সিলেট জেলার নেতা কমরেড অধ্যক্ষ ব্রজ গোপাল দে চৌধুরী পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সাম্যবাদী দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড আফরোজ আলী, গণতন্ত্রী পার্টি সিলেট জেলা শাখার সভাপতি আরিফ মিয়া, ন্যাপ সিলেট জেলার সম্পাদক এম এ মতিন, ওয়াকার্স পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য ও সিলেট জেলার সভাপতি কমরেড সিকন্দর আলী, সিপিবি সিলেট জেলা কমিটির নেতা ডা. বীরেন্দ্র চন্দ্র দেব, বাসদ সিলেট জেলার আহবায়ক কমরেড সৈয়দ আবু জাফর, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক আবুল ফজল চৌধুরী, সাবেক চেয়ারম্যান দীনুল ইসলাম বাবুল, সাম্যবাদী দল হবিগঞ্জের নেতা কমরেড শেখ আব্দুল কুদ্দুছ খান, সিলেট জেলা সাম্যবাদী দলের অন্যতম সদস্য কমরেড নিবাস চক্রবর্তী, বুরুঙ্গা ইউনিয়ন সাম্যবাদী দলের সম্পাদক কমরেড সেলিম আহমদ।
এসময় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ভাসানী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, কৃষক-সমবায়ী নেতা ইশ্বাদ আলী মেম্বার, সাম্যবাদী দলে বালাগঞ্জ থানার আহবায়ক কমরেড জনক চক্রবর্তী, আসাদ্দর আলী স্মৃতি পরিষদের সভাপতি লায়ন মিছবাহ উদ্দিন, লুৎফুর রহমান, যুব সংগঠক আজাদ মিয়া, কমরেড সজল রায় প্রমুখ।
সভাশেষে বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল (এম এল)-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক কমরেড দিলীপ বড়ুয়া ব্যক্তিগত তহবিল থেকে শীতবস্ত্র বিতরণ করেন।
ভাষা সৈনিক ও ‘৭১-এর মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও সাম্যবাদী দলের সাবেক সভাপতি কমরেড আসাদ্দর আলী সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে অামাদের প্রতিনিধিকে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির মৌলভীবাজার জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য, অারপি নিউজের প্রধান সম্পাদক ও বিশিষ্ট কলামিস্ট সৈয়দ অামিরুজ্জামান বলেন, ‘কমরেড আসাদ্দর আলী ছিলেন একজন প্রগতিশীল রাজনীতিক ও মার্ক্সবাদী পন্ডিত। মার্ক্সসীয় দর্শন ও সাহিত্যে ছিল তার গভীর পড়াশুনা যার দরুন তিনি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক রাজনীতিতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হয়েছিলেন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *