দাও ফিরিয়ে সে অরণ্য, লও এ নগর

Spread the love

যেদিন থেকে অ্যামাজন পুড়ছিল সেদিন থেকেই প্রতিজ্ঞা করেছি মাসে কমপক্ষে একদিন গাছ লাগাবো!

চারপাশে নগরায়নের প্রভাব এতটাই ব্যাপক যে সবুজের ছোঁয়া মেলা ভার! খুব ছোটবেলায় পড়েছি একটি ছোট্ট পদক্ষেপ কোনো বৃহৎ অর্জন প্রাপ্তির দিকে ধাবিত করে। আশাবাদী মানুষ আমি তাই এত পচনের পরও আমার আশায় বুক বাঁধতে ভাল লাগে। বিস্ময়কর হলেও সত্যি কোন একটি ধনাত্মক কাজ শুরু করতে চাইলে আশেপাশে প্রাণোচ্ছল তরুণের অভাব হয়নি কখনোই! তরুণরা কাজ করতে চায় কিন্তু তাদের একটি জায়গা দরকার। “আমার সবুজ বাংলা” এই প্রতিপাদ্যকে অবলম্বন করে খুব স্বল্প পরিসরে তরুণদের সাথে নিয়ে আমরা শুরু করলাম আমাদের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী! আমাদের উদ্দেশ্য সুবিধাজনক স্থানে বৃক্ষদেবীকে ছড়িয়ে দেয়া!

প্রতি মাসেই যেকোন এক ছুটির দিনে আমরা সুবিধাজনক স্থানে গাছ লাগাবো। মূল বিষয় হলো সবুজকে ছড়িয়ে দেয়া চারপাশে। প্রথমত ঢাকা ও এর পার্শ্ববর্তী খালি রাস্তাকে আমরা টার্গেট করেছি। ধীরে ধীরে কলেবর বাড়বে। ঢাকা ও এর আশেপাশে কেউ তাঁর খালি জায়গায় গাছ লাগাতে চাইলে আমাদের জানালেই হবে। আমাদের স্বেচ্ছাসেবীরা নিজ উদ্যোগে আপনার এলাকায় বৃক্ষরোপণ করে আসবে। ছোট্ট এই গ্রুপে ছাত্র ও বিভিন্ন পেশার পেশাজীবীরাই স্বেচ্ছাসেবকের ভূমিকায় আছেন।

প্রথম ধাপে আমরা ডেমরা এলাকায় ১০০ গাছ রোপন করেছি। প্রতি বছর আমরা প্রায় ১৫০০ গাছ লাগাবো। সামর্থ্য ও একই মনোবৃত্তির সদস্য বাড়লে সেই সংখ্যা হয়তো আরও বাড়বে।

আমাদের উদ্দেশ্য খুব ছোট্ট কিন্তু দৃঢ়! আমরা চাই আমাদের আগামী প্রজন্ম সবুজের মাঝে বেড়ে উঠুক! অনেকেই হয়তো এই চেষ্টাটুকু চালিয়ে যাচ্ছেন নীরবে, নিভৃতে। তাদের প্রতি অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে শুভকামনা! আমরা চাই আমাদের বন্ধুগণ ছোট্ট পরিসরে হলেও তাদের আশেপাশে সবুজায়ন গড়ে তুলুক। আসুন আমরা সবাই মিলে এ দেশকে আগামী প্রজন্মের জন্য বাসযোগ্য করে তুলি। আপনার আশেপাশে গাছ লাগিয়ে আমাদের এই চেষ্টার সাথে একাত্মতা প্রকাশ করলে আমাদের এই উদ্যোগ স্বার্থকতা পাবে। আর আগামী প্রজন্ম পাবে একটি বাসযোগ্য পৃথিবী!

কবি সুকান্তের কন্ঠে কন্ঠ মিলিয়ে বলতে চাই

….. এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি-
নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার!

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *