করোনা মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি, সর্বদলীয় বৈঠকের আহ্বান বাম জোটের

Spread the love

স্টাফ রিপোর্টার”শেখ জুয়েল রানা

ঢাকা, ০৪ এপ্রিল ২০২০: বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের সংক্রমণকে ‘জাতীয় দুর্যোগ’ ঘোষণা এবং মোকাবেলার সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণের লক্ষ্যে সর্বদলীয় বৈঠকের আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে বাম গণতান্ত্রিক জোট।
এর অাগে শুক্রবার (৩ এপ্রিল)
বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরোও এক বিবৃতিতে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ নিরোধ ও সামাজিক-অর্থনৈতিক পুনর্বাসনে অবিলম্বে ভবিষৎমুখী পরিকল্পনা নিতে ও নির্দেশনা দিতে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সর্বদলীয় বৈঠক ডাকার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল।
শনিবার (৪ এপ্রিল) বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের এক সভা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয়। সভা থেকে দেশের বর্তমান করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয় এবং এর ভয়াবহতা সম্পর্কে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে কতিপয় প্রস্তাব সম্বলিত স্মারকলিপি ই-মেইলযোগে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রেরণ করা হয় বলে বাম গণতান্ত্রিক জোটের এক বিবৃতিতে জানানো হয়।
সভার প্রস্তাবে বলা হয়, অভূতপূর্ব এই মরণঘাতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের মহা সংকট মোকাবেলা করা একা সরকারের পক্ষে সম্ভব নয়। ফলে এ সংকটকে ‘জাতীয় দুর্যোগ’ ঘোষণা করে দেশের সকলের অংশগ্রহণে সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণের লক্ষ্যে সকল গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দলের সর্বদলীয় সভা আহ্বানের জানান নেতৃবৃন্দ।
অপরাপর প্রস্তাবে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে জনগণের চিকিৎসা নিশ্চিত করা; ডাক্তার-নার্স-স্বাস্থ্যসেবাকর্মীদের প্রয়োজনীয় পর্যাপ্ত সুরক্ষা সামগ্রী সরবরাহ করা; প্রত্যেক জেলায় করোনা পরীক্ষা ল্যাব স্থাপন করে রেনডম পদ্ধতিতে ব্যাপক জনগণের করোনা পরীক্ষা করা; অন্যান্য সাধারণ রোগীদের চিকিৎসা নিশ্চিত; বেসকরারি হাসপাতালের ল্যাবসমূহ যেগুলো করোনা পরীক্ষার উপযোগী সেগুলো সরকারি নিয়ন্ত্রণে এনে বিনামূল্যে পরীক্ষার ব্যবস্থা করা; প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন ব্যবস্থা বাড়ানোর জন্য দেশের তারকা হোটেল ও জেলা সদরের ভালো হোটেলসমূহ ৬ মাসের জন্য অধিগ্রহণ করে এ কাজে ব্যবহার করা; করোনা সনাক্তদের চিকিৎসা অন্যান্য সাধারণ হাসপাতালে না করে ডেডিকেটেড হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসা করানো এবং এজন্য ব্রাজিল, চীনের অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়ে আর্মি স্টেডিয়ামসহ সকল জেলা-উপজেলা সদরের স্টেডিয়ামসমূহে অস্থায়ী ফিল্ড হাসপাতাল নির্মাণ করা; এক্ষেত্রে সেনাবাহিনীর ফিল্ড হাসপতালের সরঞ্জাম ও অভিজ্ঞতার ব্যবহার করা যেতে পারে।
করোনার এই জাতীয় দুর্যোগ মোকাবেলায় পর্যাপ্ত তহবিল গঠন করা, এজন্য বাজেটের পুনর্বিন্যাস করে অপ্রয়োজনীয় খাতের বরাদ্দ কেটে এবং প্রয়োজনে উন্নয়ন প্রকল্পের বরাদ্দ কেটে এ তহবিলে বরাদ্দের কথা বলা হয় সভার এক প্রস্তাবে।
বস্তিবাসী, হকার, রিকশা-ভ্যান-অটো রিকশা-সিএনজি চালক, পরিবহন শ্রমিক, ফুটপাতের ছিন্নমূল মানুষ, অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের শ্রমজীবী, গ্রামের দিনমজুর, ভূমিহীন নিন্মবিত্ত মানুষসহ হতদরিদ্র সকলের আগামী ৬ মাসের খাদ্য সহায়তা ও অন্যান্য প্রয়োজন মেটানোর জন্য নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করা। শুধু আমলা প্রশাসন ও সরকার দলীয় লোক দিয়ে নয় সর্বদলীয় জাতীয় কমিটির মাধ্যমে করোনা ত্রাণ সহায়তা বিতরণ করা যাতে সকলের ত্রাণ প্রাপ্তি নিশ্চিত হয়। ফুটপাতের ছিন্নমূল মানুষদের আপদকালীন সময়ের জন্য বন্ধ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কমিউনিটি সেন্টারে থাকার ব্যবস্থা করে প্রয়োজনীয় খাদ্য সহায়তা প্রদান করার কথা বলা হয় সভায়।
বাম জোটের সভার প্রস্তাবসমূহ বাস্তবায়নের জন্য সর্বদলীয় সভা করে সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানানো হয়। যদি সরকার সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণের জন্য সর্বদলীয় সভা আহ্বান না করে তাহলে বাম গণতান্ত্রিক জোট দেশের সকল গণতান্ত্রিক জোটের সাথে যোগাযোগ করে দ্রুত বৈঠকের উদ্যোগ নেবে এবং সকলের মতামতের ভিত্তিতে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় করণীয় নির্ধারণ ও বাস্তবায়নে সমন্বিত উদ্যোগ নেয়া হবে বলেও সভায় সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে সভায় বক্তব্য রাখেন বাম জোটের সমন্বয়ক ও বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড বজলুর রশীদ ফিরোজ, বাম গণতান্ত্রিক জোট কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের সদস্য বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান, সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক কমরেড শাহ আলম, প্রসিডিয়াম সদস্য আবদুল্লাহ ক্বাফী রতন, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাইফুল হক, আকবর খান, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোশাররফ হোসেন নান্নু, আব্দুস সাত্তার, বাসদ (মার্কসবাদী) নেতা মানস নন্দী, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোশরেফা মিশু, শহিদুল ইসলাম সবুজ, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী কমরেড জুনায়েদ সাকী ও সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক কমরেড হামিদুল হক।

প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সর্বদলীয় বৈঠকের আহ্বান জানিয়েছে ওয়ার্কার্স পার্টি

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরো শুক্রবার (৩ এপ্রিল) এক বিবৃতিতে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ নিরোধ ও সামাজিক-অর্থনৈতিক পুনর্বাসনে অবিলম্বে ভবিষৎমুখী পরিকল্পনা নিতে ও নির্দেশনা দিতে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সর্বদলীয় বৈঠক ডাকার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।
ওয়ার্কার্স পার্টির বিবৃতিতে বলা হয়, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ এখনো সীমিত রাখা সম্ভব হলেও এ নিয়ে আত্মতুষ্টির অবকাশ নাই। ইউরোপের দেশ ইতালি, স্পেন, ফ্রান্স ও বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র এর মাসুল দিচ্ছে। এটা আশার কথা যে প্রধানমন্ত্রী উপজেলা পর্যায় থেকে ঢাকা পর্যন্ত প্রতিদিন এক হাজার পরীক্ষার নির্দেশ দেয়ার ফলে পরীক্ষা ও পরীক্ষার মাধ্যমেই সনাক্তকরণের বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা যে তাগিদ দিয়ে আসছিল তা কিছুটা পূরণ হবে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী তার স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা নিয়ে বিশেষ করে করোনা পরীক্ষা নিয়ে যে বাগড়াম্বর করছিলেন তার অবসান ঘটবে। স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এসব বক্তব্যের জন্য জনগণ বিভ্রান্তিতে পড়ছিল। তাদের সতর্কতা শিথিল হচ্ছিল। এখন পরীক্ষার মধ্য দিয়ে প্রকৃত চিত্র বেরিয়ে আসলে সরকার যেমন, মানুষও তেমনি তাদের ব্যবস্থা নিতে পারবে।
ওয়ার্কার্স পার্টির বিবৃতিতে বলা হয়, সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনায় সমস্ত বিষয়ে রাজনৈতিক নেতৃত্ব দিতে সকল রাজনৈতিক দল ও সামাজিক সংগঠনের সম্পৃক্তি প্রয়োজন। প্রয়োজন জনপ্রতিনিধিদের সংপৃক্ততা। এই মুহূর্তে দোষারোপ নয়। যেসব ক্ষেত্রে ঘাটতি রয়েছে তা পূরণ করতে সবার পরামর্শই গুরুত্বপূর্ণ। ওয়ার্কার্স পার্টির বিবৃতিতে বলা হয় করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধের সমস্ত বিষয় পৃথিবীর জন্য নতুন অভিজ্ঞতা। সামনে দূরতিক্রম্য পথ রয়েছে। সে কারণে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ করা জাতীয় রাজনৈতিক কর্তব্য।
বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কমরেড রাশেদ খান মেনন এমপি ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফজলে হোসেন বাদশা এমপি কর্তৃক স্বাক্ষরিত পলিটব্যুরো’র বিবৃতিতে এসব কথা বলা হয়।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে ও দুর্যোগ পরবর্তী সামাজিক-অর্থনৈতিক পুনর্গঠন ও পুনর্বাসনে অবিলম্বে ভবিষ্যৎমুখী মহাপরিকল্পনা প্রণয়ন ও নির্দেশনা দিতে সর্বদলীয় বৈঠক ডাকার দীর্ঘমেয়াদে ও সুদূরপ্রসারী তাৎপর্য ও গুরুত্ব রয়েছে বলে মনে করছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির মৌলভীবাজার জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য, অারপি নিউজের সম্পাদক ও বিশিষ্ট কলামিস্ট সৈয়দ অামিরুজ্জামান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *