করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সকল রাজনৈতিক দলকে সম্পৃক্ত করুন: বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি

Spread the love

স্টাফ রিপোর্টার” শেখ জুয়েল রানা’

ঢাকা, ২৬ মার্চ ২০২০: বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি পলিটুব্যরো আজ এক বিবৃতিতে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের কারণে সংকটগ্রস্থ রপ্তানীমুখী শিল্পের শ্রমিক কর্মচারীদের বেতন ভাতা প্রদানের জন্য পাঁচ হাজার কোটি টাকার তহবিল গঠনের ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছে। ওয়ার্কার্স পার্টি বিবৃতিতে বলেন একই সঙ্গে যে দরিদ্র মানুষকে ১০ টাকা দরে চাল প্রদান, ‘ঘরে ফেরা’ কর্মসূচিতে যারা গ্রামে ফিরে যেতে চায় তাদের সহায়তা প্রদান, জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে গরীব মানুষদের জন্য ছয় মাসের খাবার সংস্থান ও গৃহহীনদের গৃহতৈরী করে দেয়ার প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে। ওয়ার্কার্স পার্টি বিবৃতিতে বলেন, অতীতে পাটকল শ্রমিকদের বকেয়া হপ্তা, ভাতা গ্রাচুয়িটি ও প্রভিডেন্ট ফান্ড দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর বরাদ্ধকৃত একহাজার কোটি টাকা সে কাজে সামান্যই ব্যবহৃত হয়েছে। বরং দেনা-পাওনা মেটাতে ব্যয় করা হয়েছে। এ কারনে প্রধানমন্ত্রীর এই বিশেষ তহবিলের টাকা বেতন-ভাতা হিসাবে শ্রমিক কর্মচারীরা যাতে পায় তা নিশ্চিত করতে মালিকপক্ষের সাথে শ্রমিক প্রতিনিধিদেরও যুক্ত করার আহবান জানান হয়েছে। ওয়ার্কার্স পার্টির বিবৃতিতে বলা হয় যে দেশের শ্রমজীবি মানুষের সংখ্যগরিষ্ট এখন অপ্রতিষ্ঠানিক খাতে এবং তারা তাদের আয় দিয়ে বিশেষ করে গ্রামীণ অর্থনীতি অবদান রাখছে। এই দিন আনা দিন খাওয়া শ্রমজীবি যেমন মুটে, মজুর, রিক্সাওয়ালা, অটোা-রিক্সা-টেম্পু চালক-হেলপার, এবং বিশেষ করে গৃহকর্মী যারা করনো ভাইরাস সংক্রমণের কারনে জীবিকা হারিয়েছে তাদের এবং বস্তিবাসী মানুষকে এই বিছিন্ন সময়কালে খাদ্য ঔষধ-পরিচ্ছন্নতা সামগ্রী পৌছানোর ব্যবস্থা করতে হবে। বিবৃতিতে আশা প্রকাশ করা হয় তাদের জন্যও বিশেষ কর্মসূচি হাতে নিতে হবে। এক্ষেত্রে প্রশাসনের সাথে ঢাকার মেয়র কাউন্সিলারদের সম্পৃক্ত করা জরুরী।
করোনা ভাইরাস সীমিত সামাজিক সংক্রমণের যে তথ্য রোগতত্ত্ব বিভাগ দিয়েছে তাতে উদ্বেগ প্রকাশ করে বিবৃতিতে বলা হয় এক্ষেত্রে পরীক্ষা ও স্বাস্থ্য কর্মীদের সুরক্ষা সামগ্রীর উপর ‘হু’ বিশেষ জোর দিলেও বিভাগীয় শহরগুলোতে পরীক্ষাগার স্থাপনও এখনও ভবিষ্যত বাচক। যেখানে পরীক্ষাগার আছে সেখানেও কীট পৌছায় নাই বলে জানা যাচ্ছে। ফলে ঐ সংক্রমণ শনাক্তকরণ ছাড়াই রোগী মারা যাচ্ছে যা মানুষের মধ্যে অনিশ্চয়তা ও আতংক তৈরী করছে। ওয়ার্কার্স পার্টির বিবৃতিতে বলা হয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কালাক্ষেপন, অদুরাশী ও অপ্রযোজনীয় মন্তব্য মানুষের মধ্যে আস্থা তৈরী করতে পারছেনা ফলে গুজব তৈরী হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ সেক্ষেত্রে আস্থা সৃষ্টি করলেও বাস্তবে তার প্রয়োগ পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে সহায়ক হবে।
ওয়ার্কার্স পার্টির বিবৃতিতে বলা হয় বাংলাদেশের মানুষ দুর্ভোগকে সবসময়ই সাহসের সাথে মোকাবেলা করেছে এবারও করবে। সকল রাজনৈতিক দল, সামাজিক সংগঠনকে সম্পৃক্ত করে প্রধানমন্ত্রী সেটাকে আরও এগিয়ে নিতে পারে বলে আশা প্রকাশ করেন।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণের কারণে সংকটগ্রস্থ রপ্তানীমুখী শিল্পের শ্রমিক কর্মচারীদের বেতন ভাতা প্রদানের জন্য পাঁচ হাজার কোটি টাকার তহবিল গঠনের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়ে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির মৌলভীবাজার জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য, অারপি নিউজের সম্পাদক ও বিশিষ্ট কলামিস্ট সৈয়দ অামিরুজ্জামান বলেন, এই বিশেষ তহবিলের টাকা বেতন-ভাতা হিসাবে শ্রমিক কর্মচারীরা যাতে পায় তা নিশ্চিত করতে শ্রমিক প্রতিনিধিদেরও অন্তর্ভুক্ত করা হোক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *