এএসআই আবুল হাসনাতের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে ও মাদক কারবারীদের গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন

Spread the love

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার এ এস আই আবুল হাসনাতের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে ও মাদক কারবারীদের গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন 

সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার এ এস আই আবুল হাসনাতের বিরুদ্ধে মাদক কারবারীর স্ত্রী কর্তৃক মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে ও মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতারের দাবীতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃৃহস্পতিবার দুপুরে এলাকাবাসীর উদ্যোগে উপজেলার পশ্চিম বীরগাওঁ ইউনিয়নের টাইলাবাজারে এ মানববন্ধন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়। এতে সামািিজক দূরত্ব বজায় রেখে বন্যার মাঝেও এলাকার শতাধিক লোকজন অংশ নেন।  এ সময় বক্তব্য রাখেন,স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ আবদাল মিয়া,সাবেক পশ্চিম বীরগাও ইউপি সদস্য মোঃ তোফায়েল মিয়া,মোঃ গোলজার মিয়া,মৌলভী আবুল কালাম,রুবেল মিয়া,সুধারঞ্জন দাস,হারুণ মিয়া,আলী আহমদ,জয়নুদ্দিন মিয়া, আবুল মিয়া ও সেবুল মিয়া প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, এই ঠাকুরভোগ গ্রামে দীর্ঘদিন ধরে অবাদে দেশীয় তৈরীর চোলাই মদ বানিয়ে বিক্রি করে মুনাফা নিলেও ধবংস হতে চলছিল এলাকার যুবসমাজ। কিন্তু দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার এ এস আই মোঃ আবুল হাসনাত যোগদানের পর থেকে ঐ সমস্ত মাদক কারবারীদের বিরুদ্ধে এ্যাকশনে যাওয়ায় গ্রামের গুটিকয়েকজনের স্বার্থে আঘাত লাগায় মূলত তারা মাদক ব্যবসায়ীর স্বজন ঐ নারীকে দিয়ে পুলিশ সুপার বরাবরে একটি মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেন।

 

সরকার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো ট্রলারেন্স ঘোষনা করলেও এই  মাদকের ছোবল থেকে যুব সমাজকে রক্ষা করার অংশ হিসেবে  এই সাহসী পুলিশ অফিসার এ এস আই মোঃ আবুল হাসনাত ঠাকুরভোগ গ্রামে মাদকের বিরুদ্ধে এ অভিযান পরিচালনা করেন এবং এতে প্রচুর পরিমাণ মাদকদ্রব্য উদ্ধারসহ দুইজনকে আটক করেন। তার এই সাহসী উদ্যোগে এলাকায় স্বস্তি ফিরে আসলেও কপাল পুড়ে মাদক ব্যবসায়ী ও তাদের আশ্রয়দাতাদের। ফলেই এমন ভিত্তিহীন অভিযোগ দায়ের করা হয়। অবিলম্বে ঐ মিথ্যা অভিযোগ প্রত্যাহারসহ ঐ সমস্ত সমাজ ধবংকারী মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেæফতার করে তাদের আস্তানা চিরদিনের জন্য বন্ধ করতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পুলিশ সুপারের নিকট জোর দাবী জানান।

উল্লেখ্য গত ১২ জুলাই গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার এস আই আলাউদ্দিনের নেতৃত্বে এ এস আই আবুল হাসনাতসহ পুলিশ সদস্যরা  ঠাকুরভোগ গ্রামের মাদক কারবারী মনাই রবি দাস, মোহন লাল রবিদাস,কালী চরণ  রবিদাস,রং লাল রবিদাস,সুজন রবিদাসের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে  চোলাই মদ তৈরীর উপকরণ ওয়াস এক হাজার লিটার এবং দেশীয় তৈরী ২০০ লিটার চোলাই মদ উদ্ধার করেন । এ সময় দুই মাদক ব্যবসায়ী মোহন লাল রবিদাস ও মদ ক্রয়কারী সুজন রবিদাসকে আটক করা হয় এবং গত ১৩ জুলাই মাদকদ্রব্য  নিয়ন্ত্রন আইনে থানার এস আই মোঃ আলাউদ্দিন বাদি হয়ে আটককৃত দুই মাদক ব্যবসায়ী ও পালতক আসামীদের বিরুদ্ধে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

 

এ ঘটনায় স্থানীয় কিছু মদদদাতাদের প্ররোচনায় মাদক ব্যবসা সক্রিয় রাখার অংশ হিসেবে মাদক ব্যবসায়ী মোহন লাল রবিদাসের স্ত্রী আমরতি রবিদাসকে দিয়ে থানার এ এস আই মোঃ আবুল হাসনাতের বিরুদ্ধে পুলিশ নাকি নিজেই মদ তৈরী করে তাদেরকে ফাসাঁনোর চেষ্টা সহ অভিযোগকারী  স্বজন নারীর শ্লীলতাহানি ও গর্ভাবস্থায় নাকি শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করা হয়েছে এমন অভিযোগ এনে সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান বরাবরে গত ১৮ জুলাই একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *