আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার বিবৃতি: বিশ্বের আড়াই কোটি মানুষ বেকার হতে যাচ্ছে করোনার কারণে

Spread the love

স্টাফ রিপোর্টার” শেখ জুয়েল রানা’

ঢাকা, ২০ মার্চ ২০২০: বর্তমান বিশ্বে এক আতঙ্কের নাম করোনা ভাইরাস। মরণব্যাধি এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বিশ্বব্যাপি বেড়েই চলেছে। এরই মধ্যে বিশ্বের ১৭২টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে এই ভাইরাসটি। বিশ্বে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ২ লাখ ১৩ হাজার ৫৫৭ জন। এর মধ্যে মৃত্যু প্রায় ৯ হাজারের মতো।

করোনা ভাইরাসের এমন প্রাদুর্ভাবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মিল-ফ্যাক্টরি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বিভিন্ন দেশের সরকার সুরক্ষামূলক ব্যবস্থা না নিতে পারলে করোনা ভাইরাসের প্রভাবে প্রায় আড়াই কোটি মানুষ চাকরি হারাতে পারে বলে ধারণা করছে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা ( আইএলও)।

আইএলও এক বিবৃতির মাধ্যমে এ শঙ্কার কথা জানিয়েছে। সে সঙ্গে সারাবিশ্বে অর্থনৈতিক সংকট প্রবল হতে পারে বলেও আশঙ্কা করেছে সংস্থাটি।

তবে আইএলও বলেছে, ২০০৮ সালে বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দার সময় যেভাবে বিশ্বব্যাপী সমন্বিত উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল, এবারও তেমনটি করা গেলে বেকারত্বের হার কমে আসতে পারে।

সংস্থাটির পরিসংখ্যান মতে, করোনা মহামারির প্রভাব খুব স্বল্পমাত্রায় হলে চাকরি হারাতে পারেন কমপক্ষে ৮০ লাখ মানুষ। আর এর প্রভাব উচ্চমাত্রায় হলে এ সংখ্যা দাঁড়াবে দুই কোটি ৪৭ লাখে। ২০০৮-০৯ সালে বৈশ্বিক আর্থিক সংকটের সময় বেকার হয়েছিলেন দুই কোটি ২০ লাখ মানুষ।

আইএলওর মহাপরিচালক গাই রাইডার বলেন, করোনা ভাইরাস শুধু বৈশ্বিক স্বাস্থ্য সংকট না, এটা বৈশ্বিক শ্রমবাজার এবং অর্থনীতির সংকট। মানুষের ওপর এর ভয়ানক প্রভাব পড়ছে। ২০০৮ সালে সারাবিশ্ব সংকট থেকে উত্তরণে সমন্বিতভাবে লড়াই করেছিল। যার কারণে ভয়াবহ পরিস্থিতি সামাল দেওয়া হয়েছিল। বর্তমান পরিস্থিতি থেকে উত্তরণেও তেমনই নেতৃত্ব দরকার।

২০০৮ সালে বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দার সময় বিশ্বব্যাপী সমন্বিত উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। বর্তমান পরিস্থিতি থেকে উত্তরণেও তেমনই সুরক্ষামূলক ব্যবস্থা উদ্যোগ গ্রহণ করা দরকার বলে মনে করছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির মৌলভীবাজার জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য, অারপি নিউজের সম্পাদক ও বিশিষ্ট কলামিস্ট সৈয়দ অামিরুজ্জামান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *